শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০, ৩ শাওয়াল, ১৪৪৫ | ০৮:০১ অপরাহ্ন
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০ ০৬:২৪ অপরাহ্ন Zoom In Zoom Out

পূঁজায় সুন্দর থাকার উপায়

বিজনেস স্টার ডেস্ক
img

সহসা শুরু হচ্ছে পূঁজা। বেশি সময় বাকি নেই, শেষ সময়ের প্রস্তুতি হিসেবে ঠিক মত যত্ন নিচ্ছেন তো? সৃষ্টিকর্তা এক এক জনের শরীরের গঠন এক এক রকম করেছেন সত্যি কিন্তু যত্ন নিয়ে তাকে সুন্দর ভাবে রাখার দায়িত্ব আপনারই। পূজায় সবার মাঝে নিজেকে আলাদা করে নজর কাড়ানোর মন চায় না, এমন কেউ কি আছে? এর জন্যে প্রয়োজন ত্বক ও চুলের বাড়তি যত্ন। পাশাপাশি আপনার স্বাস্থ্যটাও সুন্দর হতে হবে। কোমল মসৃণ মোলায়েম ত্বকের প্রতি পুরুষের আকর্ষণ সৃষ্টির শুরু থেকে। মেয়েরাও তাই নিজের ত্বকের ব্যাপারে খুব যত্নশীল। ত্বকের যত্নে শেষ প্রস্তুতি হিসেবে কিছু টিপস দেয়া হলঃ
- প্রতিদিন কমপক্ষে ৮ গ্লাস পানি খান। এই গরমের সময়ে স্বাভাবিক ভাবেই আপনার শরীর ডিহাইড্রেটেড হয়ে যাবে, তাই স্কিন টোন টান টান রাখতে আপনাকে প্রচুর পানি পান করতে হবে।
- রোদে পোড়া দাগ যেতে অনেক সময় লাগে, তাই রোদে কম বের হবেন, হলেও ছাতা নিয়ে যান এবং একটি ভালো ব্র্যান্ড এর সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করবেন।
- রোদে পোড়া ত্বক কে মোলায়েম করতে ও দাগ ওঠাতে নিয়মিত কাঁচা টমেটো কেটে ঘষুন। আরেকটা জিনিস করতে পারেন , তা হল ডাল বেটে রস মুখে মেখে ভালো করে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করে স্বাভাবিক পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
- চোখের নীচে কালো দাগ পুরো মুখের সৌন্দর্যটাকেই নষ্ট করে দেয়। তাই চেষ্টা করুন রাত কম জাগতে। আর দাগ টাকে কিছুটা কমাতে শশা কুচি বা আলু কুচি দিয়ে ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। কুচি করার কিছু না থাকলে চাকা চাকা করে কেটেও ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু যাই করবেন নিয়মিত করতে হবে। এতে ক্লান্তিও দূর হবে, ফ্রেশ লাগবে।
- পূজার ৩/৪ দিন আগে ভালো পার্লার বা বাসায় সুন্দর করে ফেসিয়াল করে নিতে পারেন। আপার লিপ, আই ব্রো প্লাক, মুখের রঙের সাথে মানানসই ব্লিচ করতে পারেন। কিন্তু ২ মাসের কম সময়ের মধ্যে ২ বার ব্লিচ করবেন না।
- ব্রণের সমস্যায় নিম পাতা বেটে সরাসরি মুখে লাগান, কিন্তু অ্যালার্জি থাকলে না করাই ভালো। রসুন ত্বকের জন্যে ক্ষতিকর, কাজেই ব্যবহার করবেন না।
- কনুই বা হাঁটুর কালো দাগ সারাতে বেসন, দুধ, লেবু মিশিয়ে মাখুন। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। গাজর, শশা বেশি করে খান। গাজর ঠোঁটের কোণের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে।
লম্বা , ঘন কালো চুল পেতে কার না মন চায়? প্রিয়ার সৌন্দর্যের বর্ণনা করতে গিয়ে যুগে যুগে সব কবিরাই চুলের প্রশংসা করেছেন। মেয়েরাও চুলের ব্যাপারে খুব সেন্সেটিভ। কিছু ঘরোয়া সহজ কিছু কৌশল জেনে নেয়া যাক।
- বাজারে খুব কম দামে আমলকী ও লেবু পাওয়া যায়। লেবুর রস ও আমলকীর রস একসাথে মিশিয়ে তেলের সাথে এক ঘণ্টা চুলে দিয়ে রাখতে হবে। তারপর শ্যাম্পু করুন। দেখবেন খুব নরম লাগছে আর গ্লেস দিচ্ছে।
- নারকেল তেল, অলিভ অয়েল একসাথে মিশিয়ে একটু গরম করে নিন। এবার তাতে একটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল (বড়) ভেঙ্গে হাত দিয়ে নাড়ুন। একটা স্পঞ্জ এর সাহায্যে চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে মাখুন। কয়েক ঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন।
- চুলে চিকচিকে ভাব আনতে আরেকটা জিনিস করতে পারেন। তা হল পাকা কলা মেখে আধা ঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার চুল পুষ্টি পাবে ও শাইনি হবে।
- প্রোটিন ট্রিটমেন্ট চুলের জন্যে খুব দরকারি, মাসে অন্তত একবার প্রত্যেক মেয়েরই প্রোটিন ট্রিটমেন্ট করা উচিত। কিভাবে করবেন? পার্লারের এত বিল গুনতে কারোরই ভালো লাগেনা, তো ঘরেই করে নিন। খুব সোজা, কম খরচেই করে নেয়া যাবে। একটি বাটিতে ডিম ফাটিয়ে সাদা অংশ নিন, তাতে ২/৩ চামচ টক দই নিন, তারপর এক চামচ মধু ও দুই চামচ ভিনেগার মিশালেই তৈরি হয়ে গেলো আপনার প্রোটিন প্যাক।
- চিরতার রস শরীরের জন্যে খুব উপকারী তাই রাতে একটি চিরতা এক গ্লাস পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে খালি পেটে খেয়ে দেখুন, দেখবেন শরীর খুব ঝরঝরে লাগছে।
- সর্বোপরি প্রচুর পানি পান করতে হবে। এতে আপনার ফ্যাট বার্ন হয়ে ঘামের সাথে বেরুতে সহজ হবে। স্কিন মোলায়েম থাকবে কিন্তু চর্বি ঝরে যাবে। লক্ষ রাখবেন আপনার বেশভূষার দিকেও। এমন কাপড় পরবেন যা আপনার গায়ের রঙ, বয়স ও স্বাস্থ্যের সাথে মানিয়ে যায়। পূঁজার আনন্দ ছড়িয়ে পড়ুক আপনাদের সবার মধ্যে।

Facebook Comment

Your Comment

আরো খবর